পোর্টফলিও বানানোর জন্য অনেক গুলা পদ্ধতি আছে। আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপার হয়ে থাকেন তাহলে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কাজের স্যাম্পল রাখতে পারেন। যদি গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন তাহলে বিহেন্স, ড্রিবল এর মাধ্যমে কাজের স্যাম্পল রাখতে পারেন। তবে, আমি মনে করি আপনি যে প্রফেশনে কাজ করেন না কেনও, নিজস্ব একটা ওয়েবসাইট থাকলে অনেক সুবিদা পাওয়া যায়।

ওয়েসাইটের জন্য আপনার লাগবে ডোমেইন এবং হোস্টিং। ডোমেইন হচ্ছে ওয়েবসাইটের নাম। যেমন www.facebook.com, www.google.com, www.bbc.com ইত্যাদি। আর হোস্টিং হচ্ছে কিছু রাখার জায়গা যেমন আপনার ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট, ছবি, ভিডিও রাখার জন্য কিছু জায়গা।

ডোমেইন এবং হোস্টিং আপনি ফ্রীও পাবেন আবার টাকা দিয়েও পাবেন। ফ্রী হলে যে সমস্যা আপনি আপনার ইচ্ছামত সব করতে পারবেন না। ধরুন, আপনি রাস্তায় কিছু জিনিস বিক্রি করবেন। আপনাকে মাস শেষে টাকা দিতে হবে না। হয়তো চাঁদাবাজদের মেনেজ করে চলতে পারবেন। কিন্থু আপনার দোকান কিন্থু নিরাপত্তা নেই। যেকোনো সময় আপনাকে উচ্ছেদ করে দেওয়া হতে পারে!, রাতের বেলা মালামাল চুরি হলে কেউ দায়ভার নিবে না, রোদবৃষ্টির সময় কোন ছায়া পাবেন না। আরও অনেক সমস্যা। তেমনি ফ্রী ডোমেইন এবং হোস্টিং নিলে আপনিও এইরকম অনেক সমস্যায় পরবেন। আবার আপনি যদি টাকা দিয়ে একটা মার্কেটে দোকান নেন তাহলে অনেক সুবিদা পাবেন। এসি,পারকিং, লিফট, নিরাপত্তা আরও অনেক সুযোগ সুবিদা পাবেন। তাই আমি বলবো টাকা দিয়ে ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনার জন্য।

টাকা দিয়ে কিনার কথা বললে সবাই বলে, ভাই আমার তো কার্ড নাই বাইরের দেশ থেকে কিভাবে কিনবো? বা শুরুতে এত্ত টাকা কোথায় পাবো। আসার কথা হচ্ছে বাংলাদেশেও এখন অনেক সফটওয়্যার কোম্পানি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনা যায় এবং আপনি অনেক সহজেই কিনতে পারবেন। আর টাকার পরিমাপের কথা বললে আমি বলবো ১,৫০০ – ২,০০০ টাকার মধ্যে আপনি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনে শুরু করতে পারেন। পরে ইনকাম করা শুরু করলে আপনি প্যাকেজ আপডেট করতে পারেন। ভাই, আপনি আসছেন টাকা ইনকাম করার জন্য। এর জন্য কিছু খরছ করতে হয়। সব কিছু ফ্রীতে পাওয়া যায় না 🙂

ধরে নিলাম, আপনার ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনা শেষ। এইবার আসি কিভাবে ওয়েবসাইট বানাবো। আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি সহজে ওয়েবসাইট বানাতে পারেন। কিন্থু যারা ওয়েবসাইট বানাতে জানে না তারা কি করবে? তাদের জন্য সহজ উপায় হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট বানানো। ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে সিএমএস যার সাহায্যে আপনি কোডিং জ্ঞান ছারাই অনেক সুন্দর সুন্দর ওয়েবসাইট বানাতে পারেন। বাংলায় ইউটিউবএ অনেক ভিডিও আছে যা দেখে আপনি খুব সহজেই ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন। যেহেতু অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য আসছেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই স্মার্ট হওয়া লাগবে 🙂 এই জন্য আমি কোন লিঙ্ক দিচ্ছি না। নিজে নিজে খুজে বেড় করে শিখার চেষ্টা করুন। অনেক লাভ হবে 🙂

*** আগামী পর্বে একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইটে কি কি রাখা লাগবে বা কিভাবে ডিজাইন করবো বা পার্সোনাল ওয়েবসাইট দিয়ে কিভাবে মার্কেটিং করবো ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করবো 🙂

পার্ট ১ – http://bit.ly/2LaTLbs

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *